অষ্টম শ্রেণির গণিত ১০ম অধ্যায় বৃত্ত সম্পর্কিত সকল গুরত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও সমাধান পিডিএফ ডাউনলোড| All Question & Answer about Circle in Bangla PDF

জে.এস.সি গণিত ১০ম অধ্যায় – বৃত্ত এর বহুনির্বাচনী সাজেশন পিডিএফ ডাউনলোড

১০ম অধ্যায়

বৃত্ত

এখানের সবগুলো প্রশ্ন ও উত্তর পিডিএফ আকারে নিচে দেওয়া লিংক থেকে ডাউনলোড করতে পারবেন।

 বৃত্ত কাকে বলে?
সহজভাবে বলতে গেলে- এক টাকার একটি বাংলাদেশি মুদ্রা নিয়ে সাদা কাগজের উপর রেখে মুদ্রাটির মাঝ বরাবর বাঁ হাতের তর্জনি দিয়ে চেপে ধরি। এই অবস্থায় ডান হাতে সরু পেন্সিল নিয়ে মুদ্রাটির গাঁ ঘেষে চারদিকে ঘুরিয়ে আনি। মুদ্রাটি সরিয়ে নিলে কাগজে একটি গোলাকার আবদ্ধ বক্ররেখা দেখা যাবে। এটি একটি বৃত্ত।

Circle
Circle

 

এবার যদি একটু কঠিন করে বলে তাহলে বলতে হয়- একটি নির্দিষ্ট বিন্দু(কেন্দ্র) থেকে সমদূরত্বের(ব্যাসার্ধ) সকল বিন্দুর সঞ্চারপথকে বৃত্ত বলে।

বৃত্তের ব্যাস, ব্যাসার্ধ ও কেন্দ্র কাকে বলে?

বৃত্তের কেন্দ্রঃ বৃত্ত আঁকার সময় নির্দিষ্ট একটি বিন্দু থেকে সমদূরবর্তী বিন্দুগুলোকে আঁকা হয়। এই নির্দিষ্ট বিন্দুটি বৃত্তের কেন্দ্র, চিত্রের বৃত্তটির কেন্দ্র O.

ব্যাসার্ধ কেন্দ্র থেকে সমদূরবর্তী যেকোনো বিন্দুর দূরত্বকে ব্যাসার্ধ বলা হয়। এখানে ব্যাসার্থকে R দিয়ে চিহ্নিত করা হয়ছে।
R তে Radius. (বহুবচনে- Raddi) এটি ব্যাস(D) এর অর্ধেক বলে, এর নাম ব্যাসার্ধ। ব্যাসার্ধ, r=d/2

ব্যাসঃ ব্যাসকে ইংরেজিতে Diameter বলে। তাই একে D দিয়ে প্রকাশ করা হয়। যে সরল রেখা বৃত্তের কেন্দ্র দিয়ে যায় এবং বৃত্তের পরিধির দুটি বিন্দুকে সংযোগ করে তাকে ব্যাস বলে। চিত্রে D ব্যাস। ব্যাসের অর্ধেক কে ব্যাসার্ধ বলে। ব্যাস, d= 2r  । যেকোন ব্যাস বৃত্তটিকে সমান দুটিভাগে ভাগ করে।

পরিধি কী? বৃত্তের সম্পূর্ণ দৈর্ঘ্যকে পরিধি বলে। অর্থাৎ বৃত্তস্থিত যেকোনো বিন্দু C থেকে বৃত্ত বরাবর ঘুরে পুনরায় C বিন্দু পর্যন্ত পথের দূরত্বই পরিধি। আরও সহজ কথায় বৃত্তটিকে মাটির উপর দিয়ে একবার ঘুরালে- রৈখিকভাবে যে দূরত্ব অতিক্রান্ত হয় তাকে পরিধি বলে। পরিধিকে ইংরেজিতে Circumference বলে। পরিধি বের করার সুত্র- 2πr ছোট বৃত্তের ব্যাস ছোট, পরিধিও ছোট; অন্যদিকে বড় বৃত্তের ব্যাস বড়, পরিধিও বড়।

বৃত্তের জ্যা কাকে বলে?

Circle Arc

 

পাশের চিত্রে, একটি বৃত্ত দেখানো হয়েছে, যার কেন্দ্র O । বৃত্তের উপর যেকোনো বিন্দু P , Q নিয়ে এদের সংযোজক রেখাংশ PQ টানি। PQ রেখাংশ বৃত্তটির একটি জ্যা। যেকোন জ্যা বৃত্তটিকে দুইটি অংশে বিভক্ত করে। ব্যাসও যেহেতু বৃত্তের পরিধির দুটি বিন্দুকে যোগ করে তাই ব্যাস নিজেও একটি জ্যা। এক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে যে- ব্যাসই বৃত্তের বৃহত্তম জ্যা।

বৃত্তের চাপ কাকে বলে?
সংক্ষেপে, বৃত্তের পরিধির যেকোন অংশকে চাপ বলে। PQ জ্যাটির দুই পাশের দুই অংশে বৃত্তটির উপর দুইটি বিন্দু Z , Y নিলে ঐ দুইটি অংশের নাম PZQ ও PYQ চাপ। আবার PQ, PZ, ZQ বা QY প্রত্যেকটি একেকটি চাপ। জ্যা দ্বারা বিভক্ত বৃত্তের প্রত্যেক অংশকে বৃত্তচাপ, বা সংক্ষেপে চাপ বলে। প্রত্যেক জ্যা বৃত্তকে দুইটি চাপে বিভক্ত করে। বৃত্তে তিন ধরনের চাপ হতে পারে। যখন জ্যাটি কেন্দ্র দিয়ে যাবে(অর্থাৎ ব্যাস) তখন দুটি সমান চাপের সৃষ্টি হবে। অন্যথায় একটি অধিচাপ অপরটি উপচাপ। অর্ধবৃত্তের বড় হলে তাকে অধিচাপ বলে যেমন- PZQ, অপরদিকে অর্ধবৃত্তের চেয়ে চাপটি ছোট হলে তাকে উপচাপ বলে- যেমন- PYQ.

বৃত্ত সম্পর্কিত উপপাদ্য

  • বৃত্তের কেন্দ্র ও ব্যাস ভিন্ন কোনো জ্যা-এর মধ্যবিন্দুর সংযোজক রেখাংশ ঐ জ্যা-এর উপর লম্ব।
  • বৃত্তের যেকোনো জ্যা-এর লম্ব-দ্বিখণ্ডক কেন্দ্রগামী।
  • যেকোনো সরলরেখা একটি বৃত্তকে দুইয়ের অধিক বিন্দুতে ছেদ করতে পারে না।
  • বৃত্তের সকল সমান জ্যা কেন্দ্র থেকে সমদূরবর্তী।
  • বৃত্তের কেন্দ্র থেকে সমদূরবর্তী সকল জ্যা পরস্পর সমান।
  • বৃত্তের ব্যাসই বৃহত্তম জ্যা।

বৃত্তের পরিধি ও ব্যাসের অনুপাত (π)
কোনো বৃত্তের পরিধি ও ব্যাসের অনুপাত ধ্রুবক । একে গ্রিক অক্ষর π (পাই) দ্বারা নির্দেশ করা হয়। অর্থাৎ, বৃত্তের পরিধি 2πr ও ব্যাস  2r  হলে অনুপাত = 2πr/2r=π

প্রাচীন কাল থেকে গণিতবিদগণ π-এর আসন্ন মান নির্ণয়ের চেষ্টা করেছেন। ভারতীয় গণিতবিদ আর্যভট্ট (৪৭৬−৫৫০ খ্রিষ্টাব্দ) π-এর আসন্ন মান নির্ণয় করেছেন $
২০০০০/৬২৮৩২= ৩⋅১৪১৬  (প্রায়)
গণিতবিদ শ্রীনিবাস রামানুজন (১৮৮৭−১৯২০) -এর আসন্ন মান বের করেছেন যা দশমিকের পর মিলিয়ন ঘর পর্যন্ত সঠিক। প্রকৃতপক্ষে, একটি অমূলদ সংখ্যা। আমাদের দৈনন্দিন হিসাবের প্রয়োজনে পাইয়ের এর আসন্ন মান 7/22 ধরা হয়। [২৬, ১৬তম বিসিএস প্রিলিমিনারি]

সংক্ষেপে বৃত্ত সম্পর্কিত সকল  তথ্য একসাথে

✬ বৃত্তের পরিধি ও ব্যাসের অনুপাতকে π বলে। –
✬ পূর্ণ বক্ররেখার দৈর্ঘ্য কে পরিধি বলা হয়। –
✬ পরিধির যেকোন অংশকে চাপ বলা হয়। –
✬ পরিধির যেকোন দুই বিন্দুর সংযোগ সরলরেখাকে জ্যা বলা হয়। –
✬ বৃত্তের কেন্দ্রগামী সকল জ্যা-ই ব্যাস। –
✬ কেন্দ্র থেকে পরিধি পর্যন্ত দূরত্বকে ব্যাসার্ধ বলা হয়। –

আরো পড়ুন:  জে.এস.সি গণিত ৩ য় অধ্যায় পরিমাপ এর গুরত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও সমাধান পিডিএফ ডাউনলোড| JSC Math MCQ Suggestion PDF Download

✬ বৃত্তের দুটি জ্যায়ের মধ্যে কেন্দ্রের নিকটতম জ্যাটি অপর জ্যা অপেক্ষা বড়। –
✬ বৃত্তের ব্যাসই বৃত্তের বৃহত্তম জ্যা। –
✬ বৃত্তের যে কোন জ্যা এর লম্বদ্বিখণ্ডক কেন্দ্রগামী। –
✬ কোন বৃত্তের ৩টি সমান জ্যা একই বিন্দুতে ছেদ করলে ওই বিন্দুটি বৃত্তের কেন্দ্রে অবস্থিত হবে। –
✬ অর্ধবৃত্তস্থ কোন এক সমকোণ। –
✬ একই সরলরেখায় অবস্থিত তিনটি বিন্দুর মধ্য দিয়ে কোন বৃত্ত আকা যায়না। –
✬ একটি বৃত্তের যেকোন দুটি বিন্দুর সংযোজক রেখাকে জ্যা বলা হয়। –
✬ বৃত্তের কেন্দ্র থেকে কোন বিন্দুর দুরত্বকে ওই বৃত্তের ব্যাসার্ধ বলে। –
✬ বৃত্তের সমান সমান জ্যা কেন্দ্র থেকে সমদূরবর্তী।
১) বৃত্তের অধিচাপে অন্তর্লিখিত কোন সুক্ষকোণ, আর উপচাপে অন্তর্লিখিত কোণ স্থুলকোন।
২) বৃত্তের অভ্যন্তরে দুইটি জ্যা পরস্পর ছেদ করলে একটির অংশদ্বয়ের অন্তর্গত আয়তক্ষেত্রের ক্ষেত্রফল, অপরটির অংশদ্বয়ের অন্তর্গত আয়তক্ষেত্রের ক্ষেত্রফলের সমান।
৩) বৃত্তস্থ চতুর্ভুজের বিপরীত কোনদ্বয়ের সমষ্টি দুই সমকোন।
৪) বৃত্তস্থ চতুর্ভূজের একটি বাহুকে বর্ধিত করলে উৎপন্ন বহিঃস্থ কোণ, বিপরীত অন্তস্থ কোনের সমান হয়।

 
 

কেন্দ্রস্থ কোণঃ

একটি কোণের শীর্ষবিন্দু কোনো বৃত্তের কেন্দ্রে অবস্থিত হলে, কোণটিকে ঐ বৃত্তের একটি কেন্দ্রস্থ কোণ বলা হয় এবং কোণটি বৃত্তে যে চাপ করে সেই চাপের ওপর তা দণ্ডায়মান বলা হয় । 

বৃত্তের ছেদক ও স্পর্শকঃ

সমতলস্থ একটি বৃত্ত ও একটি সরলরেখার যদি দুইটি ছেদবিন্দু থাকে তবে রেখাটিকে বৃত্তটির একটি ছেদক বলা হয় এবং যদি একটি এবং কেবল একটি সাধারন বিন্দু থাকে তবে রেখাটিকে বৃত্তটির একটি স্পর্শক বলা হয়।

সাধারণ স্পর্শকঃ

একটি সরলরেখা যদি দুটি বৃত্তের স্পর্শক তবে তাকে বৃত্ত দুটির একটি সাধারন স্পর্শক বলে।

বৃত্তের স্পর্শক অঙ্কনঃ

বৃত্ত সংক্রান্ত বহুনির্বাচনী প্রশ্ন সাজেশন

১. ব্যাসের দৈর্ঘ্যকে কী বলা হয়?
ক) ব্যাসার্ধ
খ) কেন্দ্র
গ) ব্যাস
ঘ) চাপ
সঠিক উত্তর: (গ)

 

২. বৃত্তের বৃহত্তম জ্যা এর দৈর্ঘ্য 4 সে. মি. হলে বৃত্তের ব্যাস কত সে.মি.?
ক) 4
খ) 3
গ) 2
ঘ) 1
সঠিক উত্তর: (ক)

৩. বৃত্ত দ্বারা আবদ্ধ সমতলীয় ক্ষেত্র কি?
ক) বর্গক্ষেত্র
খ) বৃত্তক্ষেত্র
গ) আয়তক্ষেত্র
ঘ) ত্রিভুজক্ষেত্র
সঠিক উত্তর: (খ)

৪. বৃত্তের সম্পূর্ণ দৈর্ঘকে কী বলে?
ক) ক্ষেত্রফল
খ) আয়তন
গ) পরিধি
ঘ) অর্ধ-পরিধি
সঠিক উত্তর: (গ)

৫. বৃত্তে ব্যাসের দুই প্রান্ত থেকে এর বিপরীত দিকে দুইটি সমান্তরাল জ্যা আঁকলে এরা-
ক) সমান হয়
খ) অসমান হয়
গ) ব্যাস হয়
ঘ) ব্যাসার্ধ হয়
সঠিক উত্তর: (ক)

৬. ঘড়ির সেকেন্ডের কাঁটার অগ্রভাগ কেমন পথে ঘুরতে থাকে?
ক) বর্গাকার
খ) গোলাকার
গ) ত্রিভুজাকার
ঘ) আয়তাকার
সঠিক উত্তর: (খ)

৭. প্রত্যেক জ্যা বৃত্তকে কয়টি চাপে বিভক্ত করে?
ক) একটি
খ) দুইটি
গ) চারটি
ঘ) অসংখ্যা
সঠিক উত্তর: (খ)

৮. O কেন্দ্রবিশিষ্ট বৃত্তের O বিন্দু হতে AB ও CD জ্যা সমান দূরত্বে অবস্থিত হলে নিচের কোনটি সঠিক?
ক) AB | CD
খ) AB = CD
গ) AB > CD
ঘ) AB < CD
সঠিক উত্তর: (খ)

৯. বৃত্তের কেন্দ্রগামী যেকোনো জ্যা-
i. বৃত্তের একটি ব্যাস
ii. বৃত্তের বৃহত্তম জ্যা
iii. বৃত্তের ব্যাসার্ধ নিচের কোনটি সঠিক?
ক) i ও ii
খ) i
গ) ii
ঘ) iii
সঠিক উত্তর: (ক)

আরো পড়ুন:  জে.এস.সি বাংলা ১ম পত্র অধ্যায় - ৩: পড়ে পাওয়া এর সকল তথ্য ও MCQ প্রশ্নোত্তর PDF ডাউনলোড করুন

১০. কেন্দ্র থেকে ব্যাস ভিন্ন যেকোনো জ্যা-এর উপর অঙ্কিত লম্ব জ্যাকে-
ক) সমত্রিখন্ডিত করে
খ) সমদ্বিখন্ডিত করে
গ) দ্বিগুণ করে
ঘ) চারগুণ করে
সঠিক উত্তর: (খ)

১১. আয়তক্ষেত্রের ক্ষেত্রফল = কি?
ক) দৈর্ঘ্য২
খ) দৈর্ঘ্য + প্রস্থ
গ) দৈর্ঘ্য x প্রস্থ
ঘ) দৈর্ঘ্য / প্রস্থ
সঠিক উত্তর: (গ)

আরো পড়ুন:

সকল শ্রেণির গণিত মেইন বই ও গাইড বই PDF ডাউনলোড করে নিন

১২. বৃত্তে ব্যাসের দুই প্রান্ত থেকে এর বিপরীত দিকে দুইটি সমান জ্যা অঙ্কন করলে এরা-
ক) ব্যাসার্ধ হয়
খ) ব্যাস হয়
গ) সমান্তরাল হয়
ঘ) অসমান্তরাল হয়
সঠিক উত্তর: (গ)

১৩. বৃত্তাকার বস্তুগুলোর মধ্যে রয়েছে-
i. গাড়ির চাকা
ii. থালা
iii. চুড়ি নিচের কোনটি সঠিক?
ক) i
খ) ii
গ) iii
ঘ) i, ii ও iii
সঠিক উত্তর: (ঘ)

১৪. ব্যাসের অর্ধেক দৈর্ঘ্যকে কী বলে?
ক) ক্ষেত্রফল
খ) পরিধি
গ) ব্যাসার্ধ
ঘ) অর্ধ-পরিধি
সঠিক উত্তর: (গ)

১৫. বৃত্তের ব্যাস 10 সে. মি. ও পরিধি 31.416 সে. মি. হলে বৃত্তের পরিধি ও ব্যাসের অনুপাত কত?
ক) 1 : 1
খ) 2 : 1
গ) 3 : 1
ঘ) 3.1416 : 1
সঠিক উত্তর: (ঘ)

১৬. বৃত্তের সকল সমান জ্যা কেন্দ্র থেকে-
ক) সমদূরবর্তী
খ) অসমদূরবর্তী
গ) ভিন্ন দূরবর্তী
ঘ) বর্গ
সঠিক উত্তর: (ক)

১৭. একটি বৃত্তের পরিধি 92 সে. মি. হলে এর ব্যাসার্ধ কত?[π = 3.14]
ক) 4.6 সে. মি.
খ) 14.6 সে. মি.
গ) 46 সে. মি.
ঘ) 184 সে. মি.
সঠিক উত্তর: (খ)

১৮. গাড়ির চাকা, চুড়ি, বোতাম, থালা ইত্যাদি দেখতে কেমন?
ক) আয়তাকার
খ) রম্বসাকার
গ) বৃত্তাকার
ঘ) ষড়ভুজাকার
সঠিক উত্তর: (গ)

১৯. আমাদের দৈনন্দিন হিসাবের প্রয়োজনে ধ্রুবক π-এর আসন্ন মান কত ধরা হয়?
ক) 1/7
খ) 10/7
গ) 11/7
ঘ) 22/7
সঠিক উত্তর: (ঘ)

২০. বৃত্তের কেন্দ্র থেকে সমদগূরবর্তী যেকোনো বিন্দুর দূরত্ব হচ্ছে-
i. ব্যাস
ii. ব্যাসার্ধ
iii. ব্যাসের অর্ধেক নিচের কোনটি সঠিক?
ক) i
খ) ii
গ) ii ও iii
ঘ) iii
সঠিক উত্তর: (গ)

২১. বড় বৃত্তের- i. ব্যাস বড় ii. পরিধি ছোট iii. পরিধি বড় নিচের কোনটি সঠিক?
ক) i
খ) ii
গ) i ও iii
ঘ) iii
সঠিক উত্তর: (গ)

২২. প্রত্যেক জ্যা বৃত্তকে কয়টি চাপে বিভক্ত করে?
ক) 1
খ) 2
গ) 3
ঘ) 4
সঠিক উত্তর: (খ)

২৩. O কেন্দ্রবিশিষ্ট বৃত্তের AB ও CD দুইটি জ্যা। OE এবং OF কেন্দ্র হতে জ্যায়ের লম্ব দূরত্ব। OE < OF হলে কোনটি সঠিক?
ক) AB = CD
খ) AB > CD
গ) AB < CD
ঘ) AB = 1/2 CD
সঠিক উত্তর: (খ)

২৪. কোনো বৃত্তের ব্যাস d হলে, এর ব্যাসার্ধ কত হবে?
ক) d2
খ) 2d
গ) d/2
ঘ) d/4
সঠিক উত্তর: (গ)

২৫. বৃত্তের যেকোনো কয়টি বিন্দুর সংযোজক রেখাংশ বৃত্তটির একটি জ্যা?
ক) একটি
খ) চারটি
গ) দুইটি
ঘ) ছয়টি
সঠিক উত্তর: (গ)

২৬. কম্পাসের কাঁটাটি কাগজের উপর চেপে ধরে অপর প্রান্তে সংযুক্ত পেন্সিলটি কাগজের উপর চারদিকে ঘুরয়ে আনলে কী আঁকা হবে?
ক) েআয়তক্ষেত্র
খ) বর্গ
গ) ত্রিবুজ
ঘ) বৃত্ত
সঠিক উত্তর: (ঘ)

২৭. বৃত্তের কেন্দ্র থেকে সমদূরবর্তী সকল জ্যা পরস্পর-
ক) অসমান
খ) ভিন্ন
গ) বিভিন্ন
ঘ) সমান
সঠিক উত্তর: (ঘ)

আরো পড়ুন:

জ্যামিতির সকল প্রকার সংজ্ঞা গুলি এক নজরে দেখে নিন

২৮. ছোট বৃত্তের- i. ব্যাস ছোট ii. ব্যাসার্ধ বড় iii. পরিধি ছোট নিচের কোনটি সঠিক?
ক) i
খ) i ও iii
গ) ii
ঘ) iii
সঠিক উত্তর: (খ)

২৯. কোনো বৃত্তের দুইটি জ্যা পরস্পরকে সমদ্বিখন্ডিত করলে তাদের ছেদবিন্দু বৃত্তটির-
ক) পরিসীমা
খ) পরিধি
গ) কেন্দ্র
ঘ) চাপ
সঠিক উত্তর: (গ)

৩০. 0.5 একক ব্যাসার্ধবিশিষ্ট বৃত্তের বৃহত্তম চাপের দৈর্ঘ্য কত একক?
ক) 4.1416
খ) 3.1416
গ) 3.1410
ঘ) 2.1416
সঠিক উত্তর: (খ)

আরো পড়ুন:  অষ্টম শ্রেণির অধ্যায় -১ম তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির গুরুত্ব এর সকল গুরত্বপূর্ণ প্রশ্ন সমাধান ও Suggestion PDF ডাউনলোড

৩১. বৃত্তের বৃহত্তম জ্যা হচ্ছে বৃত্তের-
ক) কেন্দ্র
খ) বৃহত্তম চাপ
গ) ব্যাস
ঘ) ব্যাসার্ধ
সঠিক উত্তর: (গ)

৩২. নিখুঁতভাবে বৃত্ত আঁকার জন্য কী ব্যবহার করা হয়?
ক) স্কেল
খ) পেন্সিল কম্পাস
গ) ত্রিভুজ
ঘ) বর্গ
সঠিক উত্তর: (খ)

৩৩. এক টাকার একটি বাংলাদেশি মুদ্রা সাদা কাগজের উপর রেখে সরু পেন্সিল দিয়ে মুদ্রাটির গাঁ ঘেষে চারদিকে ঘুরালে যে গোলাকার আবদ্ধ বক্ররেখা হবে তা কী?
ক) বর্গ
খ) ত্রিভুজ
গ) বৃত্ত
ঘ) রম্বস
সঠিক উত্তর: (গ)

৩৪. বৃত্তের ব্যাসই-
ক) ক্ষুদ্রতম জ্যা
খ) বৃহত্তম জ্যা
গ) ছোট জ্যা
ঘ) ক্ষুদ্রতম কেন্দ্র
সঠিক উত্তর: (খ)

৩৫. বৃত্তে ব্যাসের দুই প্রান্ত থেকে বিপরীত দিকে দুইটি-
i. সমান জ্যা আঁকলে তারা সমান্তরাল হয়
ii. সমান্তরাল জ্যা আঁকলে তারা অসমান হয়
iii. সমান্তরাল জ্যা আঁকলে তারা সমান হজয় নিচের কোনটি সঠিক?
ক) i
খ) ii
গ) i ও iii
ঘ) ii
সঠিক উত্তর: (গ)

৩৬. 35 সে. মি. ব্যাসার্ধবিশিষ্ট বৃত্তের পরিধি কত?[π = 22/7]
ক) ২৭ সে. মি.
খ) 105 সে. মি.
গ) 110 সে. মি.
ঘ) 220 সে. মি.
সঠিক উত্তর: (ঘ)

৩৭. বৃত্তের কেন্দ্র ও ব্যাস ভিন্ন কোনো জ্যা-এর মধ্যবিন্দুর সংযোজক রেখাংশ ঐ জ্যা-এর-
ক) সমদ্বিখন্ডিত করে
খ) সমত্রিখন্ডিত করে
গ) এক-তৃতীয়াংশ করে
ঘ) এক-চতুর্থাংশ করে
সঠিক উত্তর: (ক)

৩৮. একটি চাকার ব্যাসার্ধ 26 সে. মি. হলে, এর পরিধি কত? [π = 3.14]
ক) 52 সে. মি.
খ) 163.28 সে. মি.
গ) 40.82 সে. মি.
ঘ) 81.64 সে. মি.
সঠিক উত্তর: (খ)

৩৯. বৃত্তের কেন্দ্র হতে বৃহত্তম জ্যা এর লম্ব দূরত্ব কত?
ক) 0
খ) 1
গ) 2
ঘ) 3
সঠিক উত্তর: (ক)

৪০. বৃত্তের পরিধি 6π হলে, বৃত্তের ব্যাস কত?
ক) 3
খ) 5
গ) 6
ঘ) 8
সঠিক উত্তর: (গ)

৪১. কোনো বৃত্তের পরিধি 22 সে. মি. এবং ব্যাস 7 সে. মিক. হলে, এর পরিধি ও ব্যাসের অনুপাত কত?
ক) 7/22
খ) 22/7
গ) 14/22
ঘ) 44/7
সঠিক উত্তর: (খ)

৪২. বৃত্তস্থিত যেকোনো বিন্দু A থেকে বৃত্ত বরাবর ঘুরে পুনরায় A বিন্দু পর্যন্ত পথের দূরত্বই হচ্ছে বৃত্তটির-
ক) আয়তন
খ) পরিধি
গ) অর্ধ-পরিধি
ঘ) ক্ষেত্রফল
সঠিক উত্তর: (খ)

৪৩. আর্যভট্ট কোন দেশের গণিতবিদ?
ক) জাপান
খ) ইংল্যান্ড
গ) চীন
ঘ) ভারত
সঠিক উত্তর: (ঘ)

৪৪. 9.8 মি. ব্যাসের বৃত্তাকার বাগানের ক্ষেত্রফল কত বর্গ মি.? (π=3.14)
ক) 75.3914
খ) 150.4954
গ) 149.4954
ঘ) 148.4954
সঠিক উত্তর: (ক)

৪৫. ঘড়ির সেকেন্ডের কাঁটার অগ্রভাগ যে পথ চিহ্নিত করে তা কী?
ক) ত্রিভুজ
খ) রম্বস
গ) বর্গ
ঘ) বৃত্ত
সঠিক উত্তর: (ঘ)

আরো পড়ুন:

গণিতের সকল নোট একসাথে PDF ডাউনলোড করে নিন

৪৬. বৃত্তের প্রত্যেক ব্যাস-
i. বৃত্তকে দুইটি বৃত্তে বিভক্ত করে
ii. বৃত্তকে দুইটি অর্ধবৃত্তে বিভক্ত করে
iii. ব্যাসার্ধের দ্বিগুণ নিচের কোনটি সঠিক?
ক) i
খ) ii
গ) ii ও iii
ঘ) iii
সঠিক উত্তর: (গ)

৪৭. বৃত্তের ব্যাস ব্যাসার্ধের-
ক) অর্ধেক
খ) সমান
গ) দ্বিগুণ
ঘ) চারগুণ
সঠিক উত্তর: (গ)

৪৮. বৃত্তের ব্যাসার্ধ r হলে, বৃত্তের পরিধি-
ক) πd
খ) π2r
গ) 2πr
ঘ) 4πr
সঠিক উত্তর: (গ)

৪৯. কোনো বৃত্তের পরিধি ও ব্যাসের অনুপাত-।
ক) 0
খ) 1
গ) 10
ঘ) ধ্রুবক
সঠিক উত্তর: (ঘ)

৫০. বৃত্তের-
i. পথ একটি আবদ্ধ গোলাকার বক্ররেকা
ii. প্রত্যেক জ্যা বৃত্তকে দুইটি চাপে বিভক্ত করে
iii. সম্পূর্ণ দৈর্ঘ্য হচ্ছে বৃত্তের পরিধি নিচের কোনটি সঠিক?
ক) i
খ) ii
গ) iii
ঘ) i, ii ও iii
সঠিক উত্তর: (ঘ)

PDF File Download From Here

📝 সাইজঃ- 303 KB

📝 পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ7

Download From Google Drive

Download

Direct Download 

Download